Category Archives: 06. আযান ও ইক্বামত

(১) আযানের ফযীলত

(১) আযানের ফযীলত আযানের ফযীলত ও আহকাম সম্পর্কে অনেক যঈফ হাদীছ ও বানোয়াট কথাবার্তা সমাজে চালু আছে। সেগুলো সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা পেশ করা হল।- (১) আযানের ফযীলত : عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ أَنَّ النَّبِيَّ  قَالَ مَنْ أَذَّنَ سَبْعَ سِنِيْنَ مُحْتَسِبًا … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, আযানের ফযীলত | Leave a comment

(২) মসজিদের বাম পার্শ্ব থেকে আযান দেয়া আর ডান পার্শ্ব থেকে ইক্বামত দেয়া

(২) মসজিদের বাম পার্শ্ব থেকে আযান দেয়া আর ডান পার্শ্ব থেকে ইক্বামত দেয়া : সমাজে উক্ত প্রথা চালু থাকলেও শরী‘আতে এর কোন প্রমাণ পাওয়া যায় না। বরং সুবিধা অনুযায়ী যে কোন পার্শ্ব থেকে আযান ও ইক্বামত দেওয়া যাবে।   Posted … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, মসজিদের বাম পার্শ্ব থেকে আযান দেয়া আর ডান পার্শ্ব থেকে ইক্বামত দেয়া | Leave a comment

(৩) আযানের পূর্বে ‘বিসমিল্লাহ’ বলা, কুরআনের আয়াত পড়া, ইসলামী গযল বলা, বিভিন্ন দু‘আ পড়া, মানুষকে ডাকাডাকি করা, ফজরের আযানের পূর্বে ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান্নাঊম’ বলা

(৩) আযানের পূর্বে ‘বিসমিল্লাহ’ বলা, কুরআনের আয়াত পড়া, ইসলামী গযল বলা, বিভিন্ন দু‘আ পড়া, মানুষকে ডাকাডাকি করা, ফজরের আযানের পূর্বে ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান্নাঊম’ বলা : আযানের পূর্বে উপরিউক্ত কাজগুলো করা সম্পূর্ণ শরী‘আত বিরোধী। অনুরূপ রামাযান মাসে সাহারীর সময় আযান না … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, আযানের পূর্বে ‘বিসমিল্লাহ’ বলা, আযানের পূর্বে ইসলামী গযল বলা, আযানের পূর্বে কুরআনের আয়াত পড়া, আযানের পূর্বে বিভিন্ন দু‘আ পড়া, আযানের পূর্বে মানুষকে ডাকাডাকি করা, ফজরের আযানের পূর্বে ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান্নাঊম’ বলা | Leave a comment

(৪) ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ্’-এর জবাবে ‘ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম’ বলা

(৪) ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ্’-এর জবাবে ‘ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম’ বলা : রাসূল (ছাঃ) নির্দেশ করেছেন যে, মুয়াযযিন যা বলবেন, উত্তরে তাই বলতে হবে। শুধু ‘হায়্যইয়া আলাছ ছালাহ’ ও ‘হায়্যইয়া আলাল ফালাহ’ ব্যতীত।[1] তাই আযান ও ইক্বামতের সময় ‘আশহাদু আন্না … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, মুয়াযযিন যা বলবেন উত্তরে তাই বলতে হবে | Leave a comment

(৫) ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান নাঊম’-এর জবাবে ‘ছাদাক্বতা ওয়া বারারতা’ বলা

(৫) ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান নাঊম’-এর জবাবে ‘ছাদাক্বতা ওয়া বারারতা’ বলা : উক্ত বাক্যের জবাবে ‘ছাদ্দাক্বতা ওয়া বারারতা’ বলার কোন দলীল নেই। বরং উত্তরে ‘আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান নাউম’-ই বলতে হবে। শায়খ আলবানী (রহঃ) বলেন, ‘উক্ত কথার জবাবে ‘ছাদাক্বতা ওয়া বারারতা’ বলার … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, আছ-ছালাতু খায়রুম মিনান নাঊম’-এর জবাবে ‘ছাদাক্বতা ওয়া বারারতা’ বলা | Leave a comment

(৬) ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ’ শুনে শাহাদাত আঙ্গুলে চুম্বন করা ও চোখে মাসাহ করা

(৬) ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ’ শুনে শাহাদাত আঙ্গুলে চুম্বন করা ও চোখে মাসাহ করা : উক্ত আমল শরী‘আত সম্মত নয়। কারণ এর পক্ষে কোন ছহীহ হাদীছ নেই। যে বর্ণনাগুলো এসেছে, তা জাল বা মিথ্যা। যেমন- عَنِ الْخِضْرِ عَلَيْهِ الصَّلاَةُ وَالسَّلاَمُ … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত, শাহাদাত আঙ্গুলে চুম্বন করা ও চোখে মাসাহ করা | Leave a comment

(৭) হাত তুলে আযানের দু‘আ পাঠ করা এবং শেষে ‘লা ইলা-হা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ’ বলা

(৭) হাত তুলে আযানের দু‘আ পাঠ করা এবং শেষে ‘লা ইলা-হা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ’ বলা : আযান শেষ হওয়ার পর দুই হাত তুলে দু‘আ করা ও উক্ত বাক্য বলার যে প্রচলন রয়েছে, শরী‘আতে তার কোন ভিত্তি নেই। রাসূল (ছাঃ) কিংবা … Continue reading

Posted in 06. আযান ও ইক্বামত | Leave a comment